অবিলম্বে বিদ্যুৎ সরবরাহ নিয়ে আবেদন লেখ

প্রশ্নঃ তোমার গ্রামে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি দেওয়ার জন্য সংবাদপত্রে প্রকাশের একটি পত্র লেখ।অথবা, এলাকায় বিদ্যুৎ দেওয়ার জন্যে সংশ্লিষ্ট মহলের সুদৃষ্টি আকর্ষণের জন্য খবরের কাগজে ছাপানো উপযোগী একটি চিঠি লেখ?

উত্তরঃ
০৫.০৮.২০২২
সম্পাদক,
দৈনিক ইত্তেফাক,
কারওয়ান বাজার, ঢাকা।
বিষয়ঃ অবিলম্বে বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রয়োজন শীর্ষক পত্রটি প্রকাশের জন্য আবেদন।

জনাব,

আপনার বহুল প্রচারিত দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার চিঠিপত্র কলামে প্রকাশের জন্যে নিম্নলিখিত জনগুরুত্বসম্পন্ন সমস্যাভিত্তিক চিঠিটি প্রকাশে আমরা আপনার আনুকূল্য থেকে বঞ্চিত হব না।

বিনীত,
আসাদুল্লাহ আজাদ খান,
বাঘাদাড়িয়া, ত্রিশাল, ময়মনসিংহ।
“অবিলম্বে বিদ্যুৎ সরবরাহ চাই”

ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল থানার প্রত্যন্ত এবং অবহেলিত গ্রাম বাঘাদাড়িয়া।বাংলাদেশে আর কোনো অঞ্চল মনে হয় এমন অবহেলিত নয় বলে আমাদের গ্রামবাসীর ধারণা। স্বাধানীতার পরে এ পর্যন্ত অনেক সরকার এসেছে, কিন্তু এ গ্রামের ভাগ্যের কোনো পরিবর্তন হয়নি। কাজেই এখানে যে কখনো বিদ্যুৎ আসতে পারে সে আশাও কেউ করতে পারে না।

অথচ বিদ্যুতের অভাবে এলাকাবাসীর যে কী পরিমাণ ক্ষতি হচ্ছে তা কেবল ভুক্তভোগীরাই বলতে পারবে। আমাদের গ্রামে চারটি ডিপ টিউবওয়েলসহ স্যালো মেশিন দ্বারা সেচকার্য চালানো হয়। ডিজেল দ্বারা এসব মেশিন চালাতে উৎপাদন খরচ কয়েক গুণ বেড়ে যায়। যা দরিদ্র এলাকাবাসীর পক্ষে যেন মড়ার উপর খাঁড়ার ঘায়ের সমানই

আমাদের এখানে রয়েছে দুটি বাজার, যেখানে জেনারেটর দিয়ে ক্যারেন্ট দেওয়া হয়। এতে ব্যবসায়ীরা প্রচুর আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। গ্রামে প্রায় ১১ টির মতো ধান ও গম ভাঙানো মেশিন আছে যা ডিজেল চালিত। পার্শ্ববর্তী ডাক দাড়িয়া গ্রামে পল্লি বিদ্যুতের ব্যবস্থা আছে অথচ মাত্র অর্ধকিলোমিটার দূরে আমাদের এখানে নেই।

কিন্তু এ গ্রামের মানুষ ক্যারেন্টের সুবিধা পাচ্ছে না বলে এটাই এলাকাবাসীর মনে কষ্টের কারণ। তাই আমরা সকলে এই সমস্যার আশু সমাধান কামনা করছি।
আমরা বিষয়টি সরেজমিনে দেখার জন্যে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতাছি। সেই আপনাদের কাছে আবেদন, সঠিক উন্নয়নের স্বার্থে গ্রামে অবিলম্বে বিদ্যুতের ব্যবস্থা করুন।
গ্রামবাসীর পক্ষে–

মো. আসাদুল্লাহ খান,
বাঘাদাড়িয়া, ময়মনসিংহ।

প্রশ্ন ২ নম্বরঃ তোমার এলাকায় সংঘটিত কোনো সন্ত্রাসী ঘটনার নিন্দা জানিয়ে পত্রিকায় প্রকাশের জন্যে একটি পত্র লেখ? অথবা, গ্রামে মাস্তানদের উপদ্রবের বিবরণ জানিয়ে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণে সংবাদপত্রে প্রকাশের উপযোগী একটি চিঠি লেখ।

উপরের মতো নিয়ম, বিষয় এবং নিবেদক গুলো লেখতে পারবে। আমি মূল বিষয়টুকু লেখে দিলাম।

“সন্ত্রাসী ঘটনার নিন্দা জানাই”

রাজধানী ঢাকার পূর্বাঞ্চল বাসাবো এবং সবুজবাগ, এই দুটি অত্যন্ত জনবহুল আবাসিক এলাকা। ব্যবসায়ী ও চাকরিজীবীসহ প্রভৃতি নানা শ্রেণির মানুষের আবাসস্থল। জনসংখ্যা বেশি হলেও দুইটি অঞ্চলের মানুষ দীর্ঘদিন থেকে শান্তিপ্রিয় সহাবস্থান করতো। মাঝে মধ্যে রাজনৈতিক দলীয় কোন্দল ও দুচারটি ছোটখাটো দুর্ঘটনা ছাড়া বড় কোনো সংঘর্ষ ছিল না।

কিন্তু সম্প্রতি ব্যক্তিস্বার্থকে কেন্দ্র করে সবুজবাগ ও বাসাবোর মাঝে সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে। ক্রমে ক্রমেই ব্যক্তিস্বার্থ এলাকার বৃহৎ স্বার্থে পরিণত হচ্ছে।প্রায়ই বোমাবাজি, গোলাগুলি, মারামারি, হৈচৈ ইত্যাদি চলতে থাকে।এসব ঘটনা থামানো বা হ্রাস করার মতো তেমন প্রশাসনিক উদ্যোগ নেই

থানা ও পুলিশ হাজির হয় ঘটনা ঘটে যাওয়ার পরে।ফলাফল দিন দিন সন্ত্রাসীদের তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে।কিছুদিন আগে এক গভীর রাতে বাসাবোর একদল সন্ত্রাসী অতর্কিতে আক্রমণ চালায় সবুজবাগে কয়েকটি বাড়িতে। এতে বেশ কয়েকজন মারাত্মক আহত এবং একজন হাসপাতালে মারা যায়।

আমি এই বর্বরোচিত সন্ত্রাসীর হামলার নিন্দা জানাই।যদি প্রশাসন পূর্ব হতে তৎপর হতো তবে এমন জঘন্য ঘটনা ঘটতে পারতো না।ভবিষ্যতে যাতে এই ধরনের ঘটনা না ঘটে, সেজন্য প্রশাসনকে সজাগ থাকার জন্যে অনুরোধ করছা।
বিনীত,
আলী হাসান।

Leave a Comment